Home » আমার বরগুনা » আমতলী » আমতলী লকডাউন ঘোষণায় নিত্যপণ্য উধাও!

আমতলী লকডাউন ঘোষণায় নিত্যপণ্য উধাও!

বরগুনা অনলাইন : আমতলী উপজেলাকে লকডাউন ঘোষণার সাথে সাথে নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী মুসুরী ডাল, তেল, পিয়াজ ও আলু বাজার থেকে উধাও হয়ে গেছে। এক ধরনের অসাধু ব্যবসায়ী কৃত্রিম সঙ্কট তৈরি করে এ কাজটি করেছে বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।

জানাগেছে, আমতলী উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা জিএম দেলওয়ার হোসেন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বৃহস্পতিবার মৃত্যুবরন করেন। এ ঘটনায় শুক্রবার বিকেল সাড়ে তিনটায় বরগুনা জেলা প্রশাসক মো. মোস্তাইন বিল্লাহ আমতলী উপজেলাকে লকডাউন ঘোষনা করেছেন। মানুষকে সচেতন করতে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে উপজেলার সর্বত্র মাইকিং করা হয়েছে। পুলিশ আমতলীর প্রবেশ পথে চেকপোষ্ট বসিছেন। লকডাউন ঘোষনার সাথে সাথে নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী মুসুরী ডাল, আলু, পিয়াজ ও তেল আমতলী উপজেলার বিভিন্ন বাজার থেকে উধাও হয়ে গেছে। মানুষ বিভিন্ন দোকানে গিয়ে এ সকল পন্য খুজে পাচ্ছে না। এক শ্রেনীর অসাধু ব্যবসায়ী কৃত্রিম সঙ্কট তৈরি করে এ কাজ করেছেন বলে অভিযোগ করেন স্থানীয়রা।

আরো পড়ুন :  রডের পরিবর্তে বাঁশ, তিন বছরের মাথায় ভেঙ্গে গেল ওয়াস ব্লক

ক্রেতা শহীদুল ইসলাম, জসিম, আলমগীর ও সোহরাব হোসেন বলেন, লকডাউনের ঘোষনার সাথে সাথে আমতলী বিভিন্ন দোকান থেকে আলু, পিয়াজ, মুসুরী ডাল ও তেল উধাও হয়ে গেছে। ৫-৭ টি দোকান ঘুরেও কোন এ সকল মালামাল পেলাম না। দোকান মালিকরা বলেন, এ সকল মালামাল নেই।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যবসায়ী বলেন, গত বুধবার আড়ৎ থেকে যে পন্য এনেছিলাম তা প্রায় শেষ। এখন আড়ৎ মালিকরা মাল দিচ্ছে না। তিনি আরো বলেন, আড়ৎ মালিকরা মাল লুকিয়ে রেখেছে।

আমতলীর ইউএনও মনিরা পারভীন বলেন, লকডাউনকে পুঁজি করে কোন ব্যবসায়ী নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের কৃত্রিম সঙ্কট তৈরি করে দাম বৃদ্ধি করে থাকেন তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।